1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

১৮ মাস পর ফিরলেন চাকরিচ্যুত সেনা কর্মকর্তা

  • Update Time : শনিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৫৮ Time View

ডিবিডিনিউজ২৪ রিপোর্ট | নিখোঁজ হওয়ার ১৮ মাস পর বাড়ি ফিরেছেন সেনাবাহিনীর চাকরিচ্যুত কর্মকর্তা হাসিনুর রহমান। শুক্রবার রাত ১১টার দিকে তিনি তার মিরপুরের বাসায় ফেরেন।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার ও কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

২০১৮ সালের ৮ আগস্ট রাতে সাদা পোশাকে একদল লোক হাসিনুরকে তুলে নিয়ে যান বলে অভিযোগ তার পরিবারের। জঙ্গিগোষ্ঠীর সঙ্গে যোগাযোগ থাকার অভিযোগে ২০১১ সালে সাবেক এই লেফটেন্যান্ট কর্নেলকে সেনাবাহিনী থেকে বরখাস্ত করা হয়েছিল।

সাবেক র‌্যাব কর্মকর্তা হাসিনুরের পরিবারের সদস্যরা জানান, হাসিনুরকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে রাজধানীর মিরপুর ডিওএইচএস এলাকা থেকে মাইক্রোবাসে তুলে নেওয়া হয়। এ ঘটনায় পল্লবী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে তার পরিবার।

হাসিনুর রহমানের স্ত্রী শামীমা আখতার তার স্বামী নিখোঁজের সময় জানিয়েছিলেন, মিরপুর ডিওএইচএস এলাকার ১০ নম্বর সড়কের বাসায় পরিবারের সঙ্গে থাকেন হাসিনুর। ৮ আগস্ট রাত ১০টার দিকে তিনি বন্ধুদের সঙ্গে কথা বলতে বলতে ১১ নম্বর সড়কে যান। সেখান থেকে ফেরার পথে কিছু লোক তাকে একটি মাইক্রোবাসে তুলে নেওয়ার চেষ্টা চালায়। তখন তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন জড়ো হয়। এক পর্যায়ে তাকে তুলে নিতে আসা লোকজন ‘ডিবি’ লেখা জ্যাকেট পরে এবং নিজেদের ডিবি সদস্য বলে পরিচয় দেয়।

তিনি জানিয়েছিলেন, হাসিনুরকে যখন তুলে নেওয়া হয় তখন ওই সময়ের ছবি তোলার জন্য সেখানে থাকা এক নিরাপত্তাকর্মীকে অনুরোধ করেন তিনি। ওই নিরাপত্তাকর্মী ছবি তোলার চেষ্টা করায় তাকেও মাইক্রোবাসে তুলে নেওয়া হয়। কিছুদূর যাওয়ার পর তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

সংশ্নিষ্ট সূত্র জানায়, একসময় র‌্যাব-৫ ও র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক ছিলেন হাসিনুর রহমান। তিনি বর্ডার গার্ড বাংলাদেশেও (বিজিবি) কর্মরত ছিলেন। ২০০৯ সালের অক্টোবরে হিযবুত তাহ্‌রীর নিষিদ্ধ ঘোষণার পর সংগঠনটির উপদেষ্টা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ’র শিক্ষক গোলাম মহিউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। ওই সময় তার জবানবন্দিতে হাসিনুর রহমানের জঙ্গি-সংশ্নিষ্টতার অভিযোগ উঠে আসে। তখন তিনি র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক ছিলেন।

হিযবুত তাহ্‌রীরের কয়েক সদস্যকে গ্রেপ্তারের পর র‌্যাবও হাসিনুরের সঙ্গে সংগঠনটির সংশ্নিষ্টতা পায়। তাকে র‌্যাব থেকে অব্যাহতি দিয়ে মূল বাহিনীতে ফেরত পাঠানো হয়। রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় অভিযুক্ত হওয়ার পর তিনি চাকরি হারান। বুয়েটে পড়ালেখা করার সময় হাসিনুর রহমানের এক শ্যালিকাও হিযবুত তাহ্‌রীরের শীর্ষস্থানীয় নেত্রী ছিলেন বলে জানা গেছে।

দায়িত্বশীল গোয়েন্দা সূত্র জানায়, আনিছুর রহমান নামে এক সাবেক সেনা সদস্যকে গ্রেপ্তারের পর তার দেওয়া জবানবন্দিতে হাসিনুর রহমানের নাম আসে। ৫ বছর সাজা খেটে বের হওয়ার পর হাসিনুরসহ কয়েকজন রাষ্ট্র ও সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্র করছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com