1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

হোয়াইক্যং’র চৌকিদার বেলালের বিলাসী জীবন, নেপথ্যে ওসি প্রদীপ

  • Update Time : শুক্রবার, ৭ আগস্ট, ২০২০
  • ৫৮২ Time View

শহিদুল ইসলাম/জসিম আজাদ : কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড়ের মৃত ছৈয়দ আলমের ছেলে চৌকিদার বেলাল উদ্দিন সদ্য প্রত্যাহার হওয়া ওসি প্রদীপের সহযোগীতায় অসহায় মানুষ কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সূত্র জানা গেছে, হোয়াইক্যং ইউনিয়নের চৌকিদার বেলাল উদ্দিন রাতারাতি জিরো থেকে হিরো বনে গেছেন। বাংলাদেশ সরকার মাদক মুক্ত করার নির্দেশ দেওয়ার পর থেকে ওসি প্রদীপের ছত্রছায়ার ক্রসফায়ারের নামে ঘুষ বার্ণিজ্য শুরু করেন টেকনাফ গ্রাম পুলিশের সভাপতি নামধারী চৌকিদার বেলাল।

ওসি প্রদীপ নেতৃত্বে ক্রসফায়ারের ঘটনা শুরু হলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে পুরো টেকনাফ উপজেলায়। এ সুযোগে ইয়াবা ও ঘুষ বার্ণিজ্য নেমে যায় চৌকদার বেলাল। শুধু তাই নয় সে সদ্য প্রত্যাহার হওয়া ওসি প্রদীপের প্রধান সোর্স হিসেবে কাজ চালাতেন, সকল অবৈধ লেনদেনও করতেন তিনি। যার ফলে অসংখ্য অসহায় মানুষকে হয়রানির শিকার হতে হয়েছে। মামলায় ঢুকিয়ে দিবে বলে লক্ষ লক্ষ টাকা টাকা হাতিয়ে নিত। মানুষেকে মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে কেড়ে নিতো নামি-দামি গাড়ি। মামলার চার্জশিট থেকে বাদ দেয়ার অজুহাতে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এই চৌকিদার। তার নেতৃত্বে চলে ইয়াবা ডনদের লেনদেন। সে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে মাসিক মাসোহারা নিতেন। যার একটি বড় অংশ যেত পুলিশের পকেটে।

অথচ দুই বছর আগে চৌকিদার বেলাল পরিবারের ভরনপোষন চালাতে হিমশিম খেতো, সে রাতারাতি কোটি টাকার মালিক বনে যাওয়া নিয়ে জনমনে নানান প্রশ্ন।

এই চৌকিদার বর্তমানে ব্যক্তিগত যাতায়াতের জন্য মাসিক ৪৫ হাজার টাকায় অটোরিক্সা ভাড়া করে চলাফেরা করে। সে নিজ অর্থায়নে ৬ লক্ষ টাকা খরচ করে বাড়ি যাওয়ার জন্য একটি সড়কও নির্মান করেছেন। নামে বেনামে জায়গা-জমি ক্রয় ও বন্দক নিয়েছে অসংখ্য জমি। গত কোরবানি ঈদের ২ দিন আগে তার বাড়ির পাশের ২জন ছেলে কে পুলিশ ডিউটি দিতে যাওয়ার নাম করে তুলে দেয় হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ির হাতে ক্রসফায়ারে দিয়ে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে মোটা অংকের অর্থ আদায় করেন।

এভাবেই এলাকার নিরহ মানুষগুলো কে পুলিশ দিয়ে মামলা ও ক্রসফায়ারের হুমকি দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে এই চৌকিদার বেলাল। তার সমস্ত কার্যক্রম দেখভাল করেন তার আপন ভাই মোহাম্মদ ইসমাঈল ও মোহাম্মদ সেলিম। তার অপকর্মের বিষয়ে এলাকার মানুষ মুখ খুলতে চাইলে তাদের মামলায় ঢুকিয়ে দিবে বলে হুমকি দিয়ে দমন করে রাখতেন এই বেলাল সিন্ডিকেট।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত চৌকিদার বেলালের সাথে তার ব্যক্তিগত মুঠোফোন (০১৮৮৭০২২৪৮৮) যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এসব অভিযোগ সত্য নয়। ওসি প্রদীপের সাথে আমার কোন সম্পর্ক নেই। গ্রাম পুলিশ হিসেবে সরকারি দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে পুলিশকে বিভিন্ন কাজে সহযোগীতা করতে হয়। এসব কারণে স্থানীয় ইয়াবা কারবারীরা আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমার বিরুদ্ধে কেউ অভিযোগ প্রমাণ করতে পারলে যে কোন শাস্তির জন্য তিনি প্রস্তুত আছেন বলে জানান।

এ ব্যাপারে জানতে হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড়ের ইউপি সদস্য জালাল মেম্বারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, চৌকিদার বেলাল উদ্দিন সারাদিন ইউনিয়ন পরিষদের যাবতীয় দায়িত্ব পালন করেন। রাতে কি করেন সে বিষয়ে বিস্তারিত জানি না। তবে, পুলিশ বিভিন্ন কাজে তার সহায়তা নিতেন বলে নিশ্চিত করেছেন তিনি।

একই বিষয়ে জানতে হোয়াইক্যং ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নুর আহমদ আনোয়ারীর ব্যক্তিগত মুঠোফোনে (০১৮১২৩৬৮৯৬৯) একাধিক বার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com