1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

সারাদেশে নিরাপত্তা জোরদার

  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৬ নভেম্বর, ২০১৯
  • ২৬ Time View

ডিবিডিনিউজ২৪ ডেস্ক :

বহুল আলোচিত রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারি রেস্তোরাঁয় হামলা মামলায় আগামীকাল বুধবার রায় ঘোষণা করবেন আদালত। গত ১৭ নভেম্বর ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান এ রায়ের দিন নির্ধারণ করেন।

আদালতের সরকারি কৌঁসুলি গোলাম সারওয়ার খান (জাকির) বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘আগামীকাল কারাগারে থাকা ছয় আসামির উপস্থিতিতে এ মামলার রায় ঘোষণা করা হবে।’

এ মামলার রায় ঘিরে কঠোর অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। রায়কে কেন্দ্র করে আদালত পাড়ায় নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। বুধবার সকাল ৮ টা থেকে সেখানে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া রায়কে কেন্দ্র করে সারাদেশেও নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের পাশাপাশি গোয়েন্দারাও এ বিষয়ে কাজ করছে বলে জানিয়েছেন কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মনিরুল ইসলাম।

মঙ্গলবার দুপুরে ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মীর রেজাউল আলম ও কৃষ্ণ পদ রায় আদালত পাড়া পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে তারা আগামীকাল আদালতের বিশেষ নিরাপত্তা নিয়ে লালবাগ ডিভিশন ও আদালতের ডিসি প্রসিকিউশনকে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দেন।

ঢাকার আদালতের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি প্রসিকিউশন) জাফর হোসেন বলেন, ‘হলি আর্টিসান মামলার রায় উপলক্ষে ডিএমপির দুই অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার আদালত পাড়া পর্যবেক্ষণ করেছেন। তারা নিরাপত্তা বিষয়ে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দেবেন। হামলার কোন আশঙ্কা নেই। তবুও আমাদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে।’

ঢাকা মহানগর আদালতের হাজতখানার ওসি মঈনুল ইসলাম বলেন, ‘হাজতখানা থেকে এজলাসে আসামিদের আনা-নেওয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

২০১৬ সালে রাজধানীর হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা চালায় জঙ্গিরা। অস্ত্রের মুখে বিদেশি অতিথিদের জিম্মি করে তারা ২২ জনকে হত্যা করে। দুই পুলিশ কর্মকর্তাকেও হত্যা করে তারা।

আড়াই বছর তদন্তের পর গত বছরের ২৩ জুলাই আদালতে চার্জশিট দেয় সিটিটিসি। প্রধান আসামিদের মধ্যে পুলিশের অভিযানে ১৩ জন নিহত হওয়ায় তাদের চার্জশিট থেকে বাদ দেয়া হয়। ওই বছরের ২৬ নভেম্বর বিচার শুরু করে সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল।

এ মামলার রায়ে আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী গোলাম সারোয়ার খান জাকির। তারা সাক্ষ্য ও আলামত বিশ্লেষণে তা প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন বলেও জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com