1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

শীতের সঙ্গে বাড়ছে ব্যাধি

  • Update Time : শুক্রবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৫৬ Time View
ডিবিডিনিউজ২৪ ডেস্ক :
এবারের শীত মৌসুমের প্রথম শৈত্যপ্রবাহের শেষে গত সোমবার সূর্যের ক্ষণিক উষ্ণ পরশের আবেশ না কাটতেই আবারও সারা দেশে জেঁকে বসেছে শীত। শীতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়তে ঠাণ্ডাজনিত নানা রোগ। গতকাল দেশে সর্বনিম্ন তাপমাত্র রেকর্ড করা হয়েছে তেঁতুলিয়ায় ৬.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ দিন ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৩ ডিগ্রি এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২২ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, শুক্র ও শনিবার আরও একটি মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে, যা ২-৩ দিন অব্যাহত থাকবে।
তীব্র কুয়াশার কারণে সড়কে যানচলাচল ও নৌপথে নৌযান চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটে রুটে ফেরি চলাচল বন্ধ করে কর্তৃপক্ষ। প্রায় ৯ ঘণ্টা পর সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আবার ফেরি চলাচল শুরু হয়। ফেরি বন্ধের কারণে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাট ও মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ী ঘাটে চার শতাধিক ছোট-বড় যানবাহন পারাপারের অপেক্ষায় আটকে ছিল।ঘন কুয়াশার কারণে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কে যান চলাচলে বিঘ্ন দেখা দিয়েছে। মঙ্গলবার রাত ১০টার পর থেকেই বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম সংযোগ মহাসড়ক পুরোপুরি ঘন কুয়াশায় ঢেকে যায়। এরপর থেকেই যান চলাচলে নেমে আসে ধীরগতি।এদিকে শীতের প্রকোপে শিশুদের ডায়রিয়া রোগ বাড়ছে। রোটা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা। এ কারণে প্রতিদিন প্রায় ৬০০ শিশু এ রোগে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর আইসিডিডিআরবিতে ভর্তি হচ্ছে।বুধবার আইসিডিডিআরবিতে সরেজমিন দেখা যায়, ডায়রিয়া রোগে আক্রান্ত শিশুদের সংখ্যাই বেশি। কল্যাণপুরের বাসিন্দা আসমা আক্তার তার সাত মাসের শিশুসন্তানকে আইসিডিডিআরবিতে ভর্তি করিয়েছেন। গত তিন দিন ধরে তার সন্তানের ডায়রিয়া। এরপর তাকে এ হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছেন। আসমা আক্তার বলেন, হঠাৎ করে ঠাণ্ডা বেড়ে যাওয়ায় শিশুটির ডায়রিয়া দেখা দেয়। এরপর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আইসিডিডিআরবিতে স্বাভাবিকভাবে প্রতিদিন তিন থেকে সাড়ে তিনশ’ রোগী ভর্তি হলেও গত এক সপ্তাহ ধরে প্রতিদিন সাড়ে ৫শ’ থেকে ৬শ’ ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগী ভর্তি হচ্ছেন।আইসিডিডিআরবি’র চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. আজহারুল ইসলাম খান বলেন, শীতের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় শিশুদের ডায়রিয়া বাড়ছে। শীতের কারণে শিশুরা রোটা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় তাদের ডায়রিয়া রোগ দেখা দিচ্ছে। পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুরা এখন ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে বেশি। এর মধ্যে ২ বছরের কম বয়সীরা আরও বেশি ঝুঁকিতে। আরেক চিকিৎসক বলেন, ডায়রিয়া দেখা দিলে শিশুদের বেশি বেশি স্যালাইন খাওয়াতে হবে। এটি বেড়ে গেলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের শিশু বিভাগের আবাসিক চিকিৎসক রাজেশ মজুমদার সম্প্রতি বলেন, হাসপাতালে এআরআই ও কোল্ড ডায়রিয়া আক্রান্তের সংখ্যা বেশি।জানা গেছে, গত ১ নভেম্বর থেকে ২৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৫৪ দিনে সারা দেশের হাসপাতালে শীতজনিত বিভিন্ন রোগে মোট দুই লাখ ৫৮ হাজার ৬৫৭ জন চিকিৎসা নিয়েছেন। অপারেশন্স সেন্টার অ্যান্ড কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক ডা. আয়শা আক্তার জানান, গত দুইমাসেরও কম সময়ে রাজধানীসহ সারা দেশে মোট আক্রান্ত রোগীর মধ্যে এআরআইতে ৪১ হাজার ৬৪৫ জন, ডায়রিয়ায় ১ লাখ ৪ হাজার ৭৫৭ জন এবং অন্যান্য রোগে এক লাখ ১২ হাজার ২৫৫ জন।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com