জানা যায়, ২২ জুলাই (বুধবার) গভীর রাত ২টার দিকে টেকনাফে দায়িত্বরত র‍্যাব-১৫ (সিপিসি-১) সদস্যরা গোপন সংবাদে জানতে পারে হ্নীলা দমদমিয়া সেন্টমার্টিন কেয়ারী জাহাজ ঘাট ১৪নং ব্রীজ সংলগ্ন পাহাড়ী এলাকায় অপরাধ সংঘটিত করার জন্য একদল ডাকাত অবস্থান নিয়েছে।

সেই তথ্য অনুযায়ী র‍্যাবের একটি চৌকষ দল অভিযানে যায়। এরপর ডাকাত দলের সদস্যরা র‍্যাবের উপস্থিতি বুঝতে পেরে গুলিবর্ষন শুরু করলে আত্মরক্ষার্থে র‍্যাবও পাল্টা গুলি চালায়।

উভয় পক্ষের গোলাগুলি থেমে যাওয়ার পর র‍্যাব সদস্যরা গুলিবিদ্ধ হয়ে পড়ে থাকা এক ডাকাতকে উদ্ধার করে টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে।

নিহত যুবক হচ্ছে, মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে টেকনাফ হ্নীলা ইউনিয়ন লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আশ্রয় নেওয়া সফিক উল্লাহ পুত্র রশিদউল্লাহ (২৭)। সে পাহাড়ে লুকিয়ে থাকা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য।

এদিকে ঘটনাস্থল তল্লাশী করে দেশীয় তৈরী ২টি এলজি অস্ত্র, ৫ রাউন্ড তাজা গুলি উদ্ধার করতে সক্ষম হয় র‍্যাব।

র‍্যাব-১৫ টেকনাফ(সিপিসি-১) এর কর্তব্যরত অপারেশন কমান্ডার (এএসপি) বিমান চন্দ্র কর্মকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন