1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
শিরোনাম:
ঝরা পাতার কবিতা | অন্তিক চক্রবর্তী কারাভোগের পর দেশে ফিরেছে ২৪ বাংলাদেশি উখিয়ার রুমখাঁ বড়বিলে জমি দখলের পায়তারা করছে স্থানীয় হাসন আলী শুদ্ধ বাংলা ভাষা চর্চার অঙ্গীকার অনলাইন প্রেসক্লাব সদস্যের ভাষা শহীদদের প্রতি উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাবের শ্রদ্ধাঞ্জলি উখিয়ায় সাংবাদিককে হামলার ঘটনায় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর সহ ২জনের বিরুদ্ধে মামলা সাংবাদিক শরীফ আজাদ’র উপর হামলায় কক্সবাজার অনলাইন প্রেসক্লাবের নিন্দা সূর্যোদয় প্রভাতী সদ্ধর্ম শিক্ষা নিকেতনের উদ্যোগে ৪০ জন শিক্ষার্থীকে খাতা-কলম বিতরণ সাংবাদিক শরীফ আজাদ’র উপর হামলার প্রতিবাদে রিপোর্টার্স ইউনিটি উখিয়া’র বিবৃতি বৈদ্যুতিক শক দিয়ে শিশুকে হত্যাচেষ্টা, কারাগারে সেই তোফায়েল

রোহিঙ্গারা দেশীয় অস্ত্র আয়ত্বে আনতে সক্ষম হলে যা হতে পারে!

  • Update Time : শুক্রবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ২৮ Time View

মাহমুদুল হক চৌধুরী :

রোহিঙ্গারা ব্যাপক হারে দেশীয় অস্ত্র আয়ত্বে আনতে সক্ষম হলে সম্ভাব্য যা হতে পারে-

১. প্রয়োজনীয় মূহুর্তে আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ক্যাম্প এলাকায় প্রবেশ করতে অপারগ হতে পারে।

২. ষড়যন্ত্রকারীদের প্ররোচনায় মহিলা বা নারীসহ রোহিঙ্গারা প্রতিরোধে মেতে উঠলে আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের ক্যাম্প এলাকায় প্রবেশ করতে জোর খাটাতে হতে পারে। ফলে ব্যাপক প্রাণহানীর সম্ভাবনা থাকবে বিধায় আমাদের বাহিনী ওই এলাকায় প্রবেশও করতে পারবেনা। কারণ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ওটা কোন ভাবেই মেনে নেবেনা।

৩. এমনতর পরিস্থিতির সহায়তা পেলে রোহিঙ্গারা আরো আক্রমণাত্নক হয়ে উঠবে এবং ষড়যন্ত্রকারীদের ইন্দনে তারা কোনভাবেই মায়ানমার ফিরে যেতে সম্মতি দিবেনা। ফলে মায়ানমার সরকার ও রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কর্মরত তাদের সহযোগী বিদেশী ষড়যন্ত্রকারীরা সফল হবে এবং বাংলাদেশের উপর চলমান দূর্যোগ চিরস্থায়ী রূপ নেবে।

৪. অবশেষে ক্যাম্প এলেকার আশেপাশে বসবাসরত আমাদের দেশের নাগরীকদের উপর রোহিঙ্গারা চড়াও হয়ে তাদেরকে পরোক্ষভাবে এলাকা ছাড়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করতে পারে।

৫. ধীরে ধীরে তারা ব্যাপক লক্ষ্যের দিকে নিজেদেরকে নিয়োজিত করে আমাদের দেশকে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের নিশানায় পরিনত করতে পারে।

৬. দেশীয় অস্ত্র সরবরাহকৃত এনজিও গুলির বায়না মোটেও গ্রহণ যোগ্য নহে। আমাদের কৃষকদের সে রকম কোন কৃষি উপকরণ আদৌ দরকার নাই। বরঞ্চ সন্ত্রাসীদের নিকট হতে সেই ধরনের অস্ত্র প্রতিনিয়ত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী উদ্ধার করে যাচ্ছেন। এই সরঞ্জামাদি দিয়ে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালিত হয় মাত্র। সুতরাং এসব সরঞ্জাম রোহিঙ্গাদের সরবরাহ করার পরিণত কি হতে পারে তা সহজেই অনুমেয়।

৭. দেখা যাবে শিগগিরই রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নিয়ন্ত্রণ অন্যদের হাতে চলে গেছে। কারন ষড়যন্ত্রকারীরা তাই চায়।

উখিয়া উপজেলা প্রশাসন সাহসিকতার পরিচয় দিয়ে একটি এনজিও এর গুদাম হতে যা উদ্ধার করেছিল তা ফেরত দেওয়ার পূর্বে বেশ কয়েকবার চিন্তা করা উচিৎ ছিল।

পরিশেষে আহবান জানাবো রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বিভিন্ন তদারকির দায়িত্বে নির্ভরশীল ও সততা সম্পন্ন কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া অতি জরুরি এবং রোহিঙ্গাদের সার্বিক নিয়ন্ত্রণের জন্য শিঘ্রই সেনাবাহিনী নিয়োগের বিকল্প নাই।

লেখক : সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান, উখিয়া ও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, শরণার্থী প্রত্যাবাসন সংগ্রাম কমিটি।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com