1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

রাজনীতির ঘুমন্ত জনপদে জাগন্ত এক জনপ্রতিনিধি জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী

  • Update Time : বুধবার, ১ এপ্রিল, ২০২০
  • ৫৪ Time View

মোঃ জামাল উদ্দিন : করোনায় আক্রান্ত পুরো বিশ্ব। মানুষের পদচারণায় সদা মুখরিত বিশ্বভূবনের চিরচেনা শহর, বন্দর আর গ্রামের জনপদগুলো আজ মনুষ্যবিহীন নিস্তব্ধতার এক ভুতুড়ে চিত্র! মনে হচ্ছে, এ যেন হারিয়ে যাওয়া হাজার বছরের পুরোনো, পরিত্যক্ত কোন মানবসভ্যতার পুনরুদ্ধার! এ যেন অন্য এক জগত! এক অবিশ্বাস্য বাস্তবতা! যে বাস্তবতার নেপথ্য কারন করোনার কাছে মানুষের অসহায়ত্ব, বিজ্ঞানের অপারগতা! বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, যদি বাঁচতে চাও তাহলে, Stay at home-ই হল এই ভাইরাসকে মোকাবেলা করার সফলতম পদ্ধতি। তাই জীবনের মহামায়ায় মানুষ আজ স্বেচ্ছায় গৃহবন্দী! সৃষ্টির পর থেকে বিরামহীনভাবে চলা কা’বার তাওয়াফ করছেনা মানুষ আজ! বিশ্বের নামকরা যান্ত্রিক নগরীগুলোতেও আজ শুনশান নিরবতা। আকাশপথে পাখির মত ডানা মেলে উড়ছেনা একদেশ থেকে অন্যদেশে যাওয়া বিমানগুলো। সড়কপথে নেই কোন যানজট। নিষ্পাপ শিশুদের কলকাকলিতে মুখরিত হচ্ছেনা বিদ্যালয়ের আঙ্গিনা। ক্রেতা-বিক্রেতাহীন সমস্ত রেস্টুরেন্ট আর শপিং মলগুলো। সাগরপ্রেমীদের শূণ্যতায় বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের ঢেউয়ে আছড়ে পড়ছে এতকাল লুকিয়ে থাকা ডলফিনের দল আর বালিয়াড়ির বিশাল বিরানভূমিতে খেলা করছে কচ্ছপের ঝাঁক।

প্রকৃতির কি এক আজব লীলাখেলা! সাধারন মানুষও ঘর থেকে বের হচ্ছেননা। বের হতেও মানা! অথচ, সেই সুযোগটার-ই কিনা সৎব্যবহার করে কঠিন দুঃসময়ে খেটে খাওয়া মানুষের কাছ থেকে নিজেদের লুকিয়ে রেখেছেন সুখে-দুঃখে পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়ে জনগনের ভোটে নির্বাচিত তথাকথিত গরীবের বন্ধু নামধারী জনপ্রতিনিধিরা! এমপিসহ বেশিরভাগ চেয়ারম্যান-মেম্বারদের দেখা পাচ্ছেননা সাধারন মানুষ! একেবারে শেষদিকে কতিপয় জনপ্রতিনিধি ত্রান বিতরনের নামে জনসমক্ষে আসলেও তা নিজের দায়িত্ব কর্তব্য এবং সামর্থ্যের সাথে বেমানান। হয়তো লোকমুখের সমালোচনা থেকে বাঁচতেই ত্রান বিতরনের নামে ছিল সেসব ফটোসেশন!

একটু খেয়াল করলেই দেখবেন…

এই দুঃসময়ে উখিয়া টেকনাফের এমপি মহাশয়া যেন থেকেও নেই! একেবারে খাটি বাঙ্গালী গৃহিণীর উপর জোর করে জনপ্রতিনিধিত্বের বোঝা চাপিয়ে দিলে যা হয়, সেটাই দেখছে এই আসনের জনগন। আগেরজন এমপি থাকলে হয়তো এতদিনে সাধারন মানুষ চালডালের বন্যায় ভাসতেন বলে আমার মত অনেকেরই ধারনা। সেদিক থেকে আমরা নিশ্চিতভাবে হতভাগা!

ঘুমিয়ে আছে স্বপ্নের উপজেলা পরিষদ! চেয়ারম্যান মহোদয় অসুস্থতার সঙ্গতকারণে এলাকার বাইরে থাকায় হয়তো আমরা সমন্বিত কোন উদ্যোগ দেখিনি। এরি মাঝে, ফেসবুকের মারফতে জানলাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জনাবা কামরুন্নেছা বেবী ব্যক্তিগত তরফ থেকে দেড়শ পরিবারকে ত্রান সামগ্রী বিতরন করেছেন। এটি খুবই ভাল উদ্যোগ। কিন্ত, অপর ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম দেশে থেকেও পরবাসী কিনা বুঝতে পারছিনা। হয়তো সহকর্মীর মত জেগে উঠতে পারেন। আমরাও তাঁদের সমন্বিত বা ব্যক্তিগত পর্যায় থেকে জেগে উঠার ব্যাপারে আশাবাদী।

রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে বরাবরই সোচ্চার থাকা পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব গফুর উদ্দিনকে করোনা সমস্যা নিয়ে অদ্যাবধি কোন ভূমিকা রাখতে দেখিনি! আমরা তাঁর জ্বালাময়ী স্ট্যাটাস বা ভিডিও বার্তা আশা করেছিলাম!

লোকজন ফেসবুকে ট্রল করছেন, রত্নাপালং ইউনিয়ন পরিষদের বহুদদলীয় চেয়ারম্যান জনাব খায়রুল আলম চৌধুরী হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন! যদিও গতকাল এক বড়ুয়া বাবুর দেওয়া ত্রান সামগ্রী তাঁকে বিতরন করতে দেখা গেছে! কার ধন কে বিলায় সেটাই বুঝতে পারছিনা। জয় হউক প্রকৃত দানবীর সেই বড়ুয়া বাবুর।

জালিয়াপালং এর চেয়ারম্যান জনাব নুরুল আমিন চৌধুরী কয়েকদিন আগে জীবানুনাশক মেডিসিন স্প্রে করেছিলেন। ভেবেছিলাম, দায়িত্ব শেষ। কিন্তু না ফেসবুকে ভাসতে দেখলাম তাঁর ত্রান সামগ্রী বিতরনের কিছু স্থিরচিত্র। দেরীতে হলেও তাঁকে এই অবস্থায় দেখে আমরা আশান্বিত হয়েছি।

হলদিয়াপালং এর চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ শাহ আলম সাহেবের ব্যাপারে নেতিবাচক কিছু লিখলে লোকজন ভাববে, তিনি আমাদের জেল কাটিয়েছেন বলে ইনিয়ে বানিয়ে তার বদমান করছি! তাই তাঁর ব্যাপারে নিরব থাকাটাই অধিতকর শ্রেয়। অবশ্য অদ্য সকালবেলা ফেসবুকে তাঁরও দান করার কিছু ছবি দেখে ভাবছি ক্রমান্বয়ে সব জনপ্রতিনিধি হয়তো ঘর ছেড়ে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াবেন।

উখিয়া আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কন্ট্রাক্টর ফরিদ আহমদ নির্বাচনী স্টাইলে ট্রাকে নিজের ছবি সম্বলিত পোস্টার টানিয়ে চালডাল বিতরন করে হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন! এটার একটা ভাল দিক আছে। যেমন, অন্যরা এতে উৎসাহিত হয়ে ত্রান বিতরনে ঝাপিয়ে পড়তে পারেন! মাঝেমধ্যে নিজের ঢোল নিজে না পিটালে কি আর হয়?

জনৈক তরুন যুবনেতা দান করার একদিন আগেই নিজের ফেসবুকে ঘোষনা দিয়ে রেখেছেন, তিনিও আসছেন চালডাল নিয়ে! দিয়েছেন কিনা জানিনা। তবে জনগন প্রস্তুত। দোয়া করি, তিনি যেন আগে ঘোষনা দেওয়ার ঠেলা সামলাতে পারেন!

দান করাকে বিচিত্রভাবে চিত্রায়িত করা কিংবা সামর্থ্য থাকা সত্বেও নিজেদের লুকিয়ে রাখা অথবা সরকারী বরাদ্ধ না পাওয়ার দোহাই দিয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার প্রয়োজনীয়তার মত ঠুনকো অজুহাত দেখিয়ে দুর্যোগকালীন সময়ে সাধারন জনগনের কাছ থেকে নিরুদ্দেশ হয়ে যাওয়া জনপ্রতিনিধিদের মাঝে ব্যতিক্রম কেবল রাজাপালং ইউনিয়ন পরিষদের সম্মানীত চেয়ারম্যান জনাব জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী। ইয়া নফসি’র এই সময়ে ক্ষমতায় থাকা বেশিরভাগ জনপ্রতিনিধি যখন করোনায় সংক্রমিত হওয়ার ভয়ে নিজেদের সংকুচিত করে রেখেছেন, অথচ সেই আতঙ্কিত সময়ে করোনার ভয়কে পেছনে ফেলে অসহায় মানুষের জন্য ত্রান নিয়ে ছুটছেন গ্রাম টু গ্রাম, ডোর টু ডোর! সকালে এই গ্রাম তো দুপুরে ঐ গ্রাম আবার বিকালে অন্যকোন গ্রামে! এভাবেই বিরামহীন ছুটে চলছেন প্রকৃত এই জনপ্রতিনিধি। ক্লান্তিও তাঁকে শ্রান্ত করতে পারেনি। যেন দুর্যোগের ঘনঘটায় অসহায় মানুষের পেটের ক্ষুধা নিবারনেই তাঁর প্রশান্তি, এটাই যেন তাঁর গুরুদায়িত্ব। অন্য জনপ্রতিনিধিদের মত সরকারী ত্রানের অপেক্ষায় বসে থাকেননি তিনি। যেদিক থেকে যেভাবে যা-ই পেয়েছেন, তা নিয়ে ছুটে গেছেন অসহায় মানুষের কাছে। কখনো স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী, কখনো পানি এবং জীবানুনাশক মেডিসিন ছিটিয়ে জনগনকে নিরাপদ রাখার প্রচেষ্টা। আর এভাবেই স্বকর্ম ও সমহিমায় নিজেকে চিনিয়েছেন প্রকৃত মানবদরদী হিসেবে, গরীব অসহায় মানুষের প্রকৃত বন্ধু হিসেবে, সেবক হিসেবে। শুধু যে করোনার মত মহামারিতে তাঁর এই পদচারণা তা কিন্তু নয়, অতীতে বন্যা এবং ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়েও দলবল নিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের আঙ্গিনায় তার পদচারনা আমরা দেখেছি।

সত্যি বলতে কি, এই ক’দিন তাঁকে এবং তাঁর কর্মগুলোকে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করেছি। যতই দেখেছি, ততই অভিভূত হয়েছি! কারন, চলমান দুর্যোগে তাঁর মত অন্যকোন জনপ্রতিনিধিকে দেখিনি, যে বা যারা করোনার সমূহ ভয়কে পাশ কাটিয়ে সাধারন জনগনের পাশে দাঁড়াতে, তাদের দুর্ভোগ লাঘবের চেষ্টা করতে। ত্রান বন্টনে তাঁর সমতা, নিরলসতা এবং স্বচ্ছতা জনগনের প্রতি তাঁর অকৃত্রিম ভালবাসা, অান্তরিকতা ও দায়িবদ্ধতাকে অবিতর্কিতভাবে ফুটিয়ে তুলেছে। কি দুর্দান্ত কর্মস্পৃহা! কি অতুলনীয় সময়ানুবর্তীতা! সমন্বয়ে কি অভাবনীয় পারদর্শিতা! কেউ পাচ্ছেন কেউ পাচ্ছেননা এমনটি হতে দিচ্ছেননা। দেখছেননা, কে আওয়ামীলীগ, কে বিএনপি। এলাকার ক্ষেত্রেও একই নীতি! এ যেন হিংসা বিদ্বেষ ভুলে তাবলীগ জামাতের মত এক থালায় বসে দোস্ত-বুজুর্গ বলে খাবার খাওয়ার দৃশ্য! ত্রান বিতরনের সময় জনসাধারণের ব্যক্তিগত দূরত্ব বজায় রেখে বসার এবং গ্রহণ করার দৃশ্যটি তাঁর সচেতনতার প্রমাণ দেয়। সবকিছুতেই যেন মিরাকল! আর এই মিরাকলের অদৃশ্য কাঠি দিয়ে নিজেকে গড়ে তুলছেন জনপ্রতিনিধির মডেল হিসেবে।

জনপ্রতিনিধি সবাই হতে চাই, হতে পারেনও সবাই। কিন্তু একজন প্রকৃত জনপ্রতিনিধি হিসেবে নিজের দায়িত্ব কর্তব্যগুলো যথাযথভাবে পালন করে জনপ্রিয় হয়ে উঠাটা সবার পক্ষে সম্ভব নয়, যেমনটি জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী পেরেছেন। আর এখানেই তিনি অন্য জনপ্রতিনিধিদের থেকে আলাদা।

অথচ, এই মানুষটির ব্যাপারে করোনা আসার আগ অবধি আমার নিজের মধ্যেই একটা ভুল ধারনা ছিল। কিন্তু না, দুর্যোগে তাঁর ভূমিকা প্রমাণ করেছে আমার সেই ধারনা-ই বরং ভুল ছিল। তাই বাধ্য হয়েছি স্ব-মহিমায় গরীব দরদী হয়ে উঠা এই জনপ্রতিনিধির সুকীর্তি সমূহ তুলে ধরতে। এটি কখনোই তাঁর পক্ষে আমার দালালী করা নয়। বরং; এটি সত্য যে, অতীতে আমার মারমার কাটকাট কিছু লেখার কারনে আমি কখনোই তাঁর পছন্দের তালিকায় ছিলামনা। তাতে কি? আমিতো বরাবরই এমন। দল বা ব্যক্তি আমার কাছে কখনোই মূখ্য ছিলনা, এখনো নয়। ব্যক্তির ভাল কর্মই আমাকে বরাবরই লিখতে অনুপ্রেরণা যোগায়। সে যে দলেরই হউক না কেন। ব্যক্তির ব্যক্তিগত চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের চেয়ে তার সমাজ এবং রাষ্ট্রের কল্যাণমূখী কর্মগুলো আমার কাছে অনেক বেশি সম্মানের এবং গুরুত্বপূর্ন।

আমার প্রত্যাশা থাকবে, জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে জনাব জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর পদাঙ্ক অনুসরন করে অপরাপর জনপ্রতিনিধিরাও অসহায় জনগনের পাশে দাঁড়াবেন। এটি সকল জনপ্রতিনিধির দায়িত্ব ও কর্তব্য। জনগনও সেটা প্রত্যাশা করে। মনে রাখতে হবে, ছুতোর সুতোয় বুনা গল্পের প্রচার মানুষ এখন বিশ্বাস করেনা, এখনকার মানুষ যেটা সত্য সেটা বিশ্বাস করে।

আমার এ লিখায় কেউ কষ্ট পেয়ে থাকলে তার জন্য আমি দুঃখীত। কিন্তু, কাউকে কষ্ট দেওয়ার জন্য নয়, বরং; ভালবাসি বলে লোকমুখের সমালোচনা থেকে বাঁচাতে আমার এই লিখা।

মানবতা-ই যার কাছে প্রকৃত ধর্ম, ভালবাসা তাঁর জন্য অবিরাম…

জয় হউক মানবতার, জয় হউক জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর মত প্রকৃত জনপ্রতিনিধির।

স্যালুট টু ইউ জনাব জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী।

আল্লাহ আপনাকে দীর্ঘজীবি করুক।

লেখক : ব্যাংকার।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com