1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :
শিরোনাম:
ঝরা পাতার কবিতা | অন্তিক চক্রবর্তী কারাভোগের পর দেশে ফিরেছে ২৪ বাংলাদেশি উখিয়ার রুমখাঁ বড়বিলে জমি দখলের পায়তারা করছে স্থানীয় হাসন আলী শুদ্ধ বাংলা ভাষা চর্চার অঙ্গীকার অনলাইন প্রেসক্লাব সদস্যের ভাষা শহীদদের প্রতি উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাবের শ্রদ্ধাঞ্জলি উখিয়ায় সাংবাদিককে হামলার ঘটনায় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর সহ ২জনের বিরুদ্ধে মামলা সাংবাদিক শরীফ আজাদ’র উপর হামলায় কক্সবাজার অনলাইন প্রেসক্লাবের নিন্দা সূর্যোদয় প্রভাতী সদ্ধর্ম শিক্ষা নিকেতনের উদ্যোগে ৪০ জন শিক্ষার্থীকে খাতা-কলম বিতরণ সাংবাদিক শরীফ আজাদ’র উপর হামলার প্রতিবাদে রিপোর্টার্স ইউনিটি উখিয়া’র বিবৃতি বৈদ্যুতিক শক দিয়ে শিশুকে হত্যাচেষ্টা, কারাগারে সেই তোফায়েল

রপ্তানি আয় ৪ হাজার ৫৩ কোটি ৫০ লাখ ৪০ হাজার ডলার

  • Update Time : মঙ্গলবার, ৯ জুলাই, ২০১৯
  • ৩০ Time View

।।জাতীয় ডেস্ক।।

দেশের পণ্য রফতানিতে বড় ধরনের প্রবৃদ্ধি হয়েছে। সদ্য সমাপ্ত ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ৪ হাজার ৫৩ কোটি ৫০ লাখ ৪০ হাজার ডলারের পণ্য রফতানি হয়েছে। এই আয় গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ১০ দশমিক ৫৫ শতাংশ বেশি। আর লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি ৩ দশমিক ৯৪ শতাংশ।

সোমবার (৮ জুলাই) রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) প্রকাশিত সর্বশেষ প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

ইপিবির প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে সবধরনের পণ্য রফতানিতে বৈদেশিক মুদ্রার লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল তিন হাজার ৯০০ কোটি মার্কিন ডলার। সদ্য সমাপ্ত অর্থবছর শেষে আয় এসেছে ৪ হাজার ৫৩ কোটি ৫০ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার। লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় রফতানি আয়ে প্রবৃদ্ধি ৪ শতাংশের বেশি। এর আগে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে রফতানি আয়ের পরিমাণ ছিল ৩ হাজার ৬৬৬ কোটি ৮১ লাখ ৭০ হাজার ডলার। সে তুলনায় গত অর্থবছর শেষে রফতানি আয়ে প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে ১০ দশমিক ৫৫ শতাংশ।

প্রতিবেদনে দেখা যায়, একক মাস হিসেবে গত জুনে ২৭৮ কোটি ৪৪ লাখ ডলারের পণ্য রফতানি হয়েছে। এটি ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জুনের চেয়ে ৫ দশমকি ২৭ শতাংশ কম। ওই বছরের জুনে ২৯৩ কোটি ৯৩ লাখ ডলারের পণ্য রফতানি হয়েছিল।

জানা যায়, দেশের রফতানি আয়ের প্রায় ৮০ শতাংশ আসে তৈরি পোশাকখাত থেকে। এই খাত থেকে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে রফতানি আয় এসেছিল ৩ হাজার ৬১ কোটি ৪৭ লাখ ডলার। ২০১৮-১৯ অর্থবছর শেষে তৈরি পোশাক খাতে পণ্য রফতানি আয় অর্জিত হয়েছে ৩ হাজার ৪১৩ কোটি ৩২ লাখ ডলার। সে হিসেবে এ খাতে প্রবৃদ্ধি প্রায় ১১ দশমিক ৪৯ শতাংশ।
অন্যদিকে লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় আয় বেড়েছে ৪ দশমিক ৪২ শতাংশ। নিট পোশাক রফতানি থেকে এসেছে ১ হাজার ৬৮৮ কোটি ৮৫ লাখ ৪০ হাজার ডলার। যা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ১১ দশমিক ১৯ শতাংশ বেশি। অন্যদিকে ওভেন পোশাক রফতানিতে আয় হয়েছে ১ হাজার ৭২৪ কোটি ৪৭ লাখ ৩০ হাজার ডলার। যা ২০১৭-১৮ অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ১১ দশমিক ৭৯ শতাংশ বেশি।

ইপিবির প্রতিবেদন অনুযায়ী, সদ্য সমাপ্ত অর্থবছরের ৩৪ দশমিক ৯২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে কৃষিপণ্য রফতানিতে। এ খাত থেকে আয় এসেছে ৬৭ কোটি ৩৬ লাখ ডলার। লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় রফতানি আয় বেড়েছে ২৭ দশমিক ৮৪ শতাংশ। গত অর্থবছর শেষে প্লাস্টিক পণ্যে প্রবৃদ্ধি বেড়েছে ২১ দশমিক ৬৫ শতাংশ। এ সময়ে আয় হয়েছে ৯ কোটি ৮৪ লাখ ডলার, যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৯ দশমিক ৮ শতাংশ বেশি।

এদিকে গত অর্থবছর শেষে হোম টেক্সটাইল খাতে প্রবৃদ্ধি ও লক্ষ্যমাত্রা দুই-ই কমেছে। এ সময় আয় এসেছে ৮৭ কোটি ৮৬ লাখ ডলার। সদ্য সমাপ্ত অর্থবছর শেষে পাট ও পাটজাত পণ্যের রফতানি আয়ের প্রবৃদ্ধি কমেছে। একইসঙ্গে অর্জিত হয়নি লক্ষ্যমাত্রাও। শেষ অর্থবছরে এ খাত থেকে আয় এসেছে ১০২ কোটি ৫৫ লাখ ডলার। এছাড়া চামড়াজাত পণ্য রফতানিতে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে আয় কম হয়েছে ৯ দশমিক ২৭ শতাংশ। প্রবৃদ্ধিও গত বছরের চেয়ে কমেছে। এ সময়ে আয় হয়েছে ১০৮ কোটি ৫৫ লাখ ডলার।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com