1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

মাসিক ব্যবস্থাপনা, সেক্সুয়ালিটি ও ধর্মান্ধদের বিকৃত মানসিকতা

  • Update Time : মঙ্গলবার, ৯ জুন, ২০২০
  • ১৬০ Time View

জিন্নাতুন নেছা : ফেইসবুকের সুবাদে বাংলাদেশের তথাকথিত লেবাজধারী মুমিন সম্প্রদায়ের একটা পোস্ট চোখে পড়লো। যদিও আমি এই ধরণের লেবাজধারী মুমিনগণের পোস্ট ইগনোর করি কিন্তু আজ পারলাম না। কারণ গত মে মাস ছিলো মিনস্ট্রুয়াল হাইজিন প্রমোশনের মাস এবং এই সম্পর্কিত একটা লেখাও আমার কয়েকটি পোর্টালে এসেছে।

সেই জন্যই লেখাটা পড়তে গিয়ে চোখ তো চড়ক গাছ! আমি জানি বাংলাদেশে ধর্ম ব্যবসা করে, ধর্ম বেচে খায় এরকম সম্প্রদায়ের অভাব নাই। আর বাংলাদেশে এমন মুসলমানের ও অভাব নাই যারা সত্য মিথ্যার বিচার না করে হুজুর বেটা যা বলেছে তাতেই বেশ কিংবা চিরন্তন সত্য, এমন ভাবনার!

বিজ্ঞাপনটি যখন দেখলাম আমার কাছে কোনভাবেই মনে হয়নি এটা দৃষ্টিকটু, বিব্রতকর কিংবা অশালীন। বিজ্ঞাপনটি ছিলো এরকম, একজন বোন তার মাসিককালীন সময়ে একটু মানসিক দুঃশ্চিন্তাগ্রস্থ, কারণ কোভিড-১৯ এর কারণে বোনটি তার ন্যাপকিন কিভাবে কিনে আনবে তা ভেবে কিছুটা উদ্বিগ্ন। কিন্তু তার ভাই তাকে এই ব্যাপারে সাহায্য করে। অনলাইনের মাধ্যমে টোলফ্রি লাইনে অর্ডার করে দেয়। যা একভাবে দেখলে ডিজিটাল বাংলাদেশের অন্যতম উদহারণ।

আমি বিশ্বাস করি মাসিক কোন লজ্জার, লুকানোর কিংবা হাস্যকর বিষয় নয়। পাশাপাশি নারীর পাশে এই সময়ে পরিবারের সকলের এমনকি বন্ধুবান্ধব, স্কুলের শিক্ষক সকলেরই থাকা দরকার এই বিষয়টিই প্রমোট করা হয়েছে এই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে। কোনভাবেই মনে হয়নি এই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে সেক্সুয়ালিটিকে প্রমোট করা হয়েছে। আমার মাসিক হয়েছে, আমার ভাই আমাকে ন্যাপকিন কিনে এনে দিয়েছে তাতেই কি সেক্স বেড়ে যায়? নাকি মুমিনগণ আপনাদের জিভে জল চলে এসেছে মেয়েটাকে দেখে বা মেয়েটার যৌনাঙ্গের ইমাজিনেশন করে যা বলতে পারছেন না। তাই এমন পোস্ট আপলোডাইতেছেন।

মাসিক সৃষ্টিকর্তা প্রদত্ত নারীদের একটা খুব স্বাভাবিক, প্রাকৃতিক এবং নিয়মিত বিষয় ব্যাপার। আর আমাদের সৃষ্টিকর্তা এইটার সাথে নারীর সন্তান জন্মদানের একটা যোগসূত্র স্থাপন করেছেন। নারীর প্রজনন ক্ষমতার সাথে ওতপ্রতোভাবে জড়িত এইটি। হ্যা, আমরা নারী আমাদের মাসিকের রক্ত আমাদের যৌনাঙ্গ দিয়েই বের হয়। আর আপনি ও আপনার মায়ের এই যৌনাঙ্গ দিয়েই বের হয়েছিলেন। আবার আপনার মায়ের যৌনাঙ্গ দিয়ে বের হওয়া রক্তই খেয়েছিলেন ৯ মাস ১০ দিন। তাহলে আপনি অপবিত্র হয়ে যান নি?

আপনি পুরুষ আপনি জানেন না, একজন নারীর প্রতি মাসেই মাসিক হয়। আপনার মত আমি বোধকরি সকল পুরুষরায় এইটা জানে। কিন্তু যা জানে তা ভুল জানে। তারা এটাকে লজ্জার, লুকানোর বিষয় হিসেবে জানে। আর এজন্যই কোন কারনে নারীর জামার পিছনে যদি রক্তের দাগ লেগে থাকে তা নিয়ে হাসাহাসি করে, নানা কটু মন্তব্য করে। মুমিন সাহেব এটা আপনাদের দৃষ্টিতে খুব জায়েজ তাইনা?

কিন্তু একজন ভাই যখন বোনকে সেনোরা বা অন্য কোন ন্যাপকিন কিনে এনে দিচ্ছে বা দিতে সহায়তা করছে তাতেই আপনার মনে হলো এইটা জেনা করার শামিল। আর আপনি তাই একটা হাদিসও সাথে জুড়িয়ে দিয়েছেন যেনো আবাল, মূর্খ বাংঙ্গা লীদের কাছে তা গ্রহনযোগ্য হয়ে ওঠে।

কিন্তু কেন? ভাই-বোন, মেয়ে-বাবা জেনা করা নিষিদ্ধ বলেই জানি ইসলাম ধর্মানুযায়ী। তাহলে এমন বিকৃত চিন্তা আপনাদের মাথায় কিংবা ভাইদের মাথায় কিংবা বাবাদের মাথায় আসবেই বা কেন? ভাই বোনের সম্পর্ক ভালোবাসার, সৌহার্দ্যের। এখানে কোন পাপাচার যেমন থাকেনা তেমনি ভাবাটাও অন্যায় ,পাপ এই হাদিস আপনি পড়েননি? এটা আপনাদের মগজে বোধকরি নাই তাই না ?

আপনি ইমাজিন করতে বলেছেন পিতা সন্তানকে সেনোরা কিনে দিচ্ছে, পেন্টি কিনে দিচ্ছে! করলাম ইমাজিন কিন্তু কই কিছুই তো হলোনা আমার! এইখানেই আপনাদের মত মুমিনের ধ্বজাধারীদের, লেবাজধারীদের সাথে আমাদের পার্থক্য। আমরা যেকোন বিষয়ে ইমাজিন করে আপনাদের মত জিভে জল নিয়ে ঘুরিনা। আর নারীর ভ্যাজাইনার কথা মনে করেই শিশ্ন উচু কর তুলিনা।

আর আপনিই বা ঠিক দেবার কে আমি নারী আমাকে কে সেনোরা কিনে এনে দেবে, কে পেন্টি কিনে এনে দেবে? সঠিক মাসিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা আমার অধিকার। আমার অধিকার নিয়ে কথা বলার স্বাধীনতাও আমার আছে । তাই আমি ঠিক করবো আমার ন্যাপকিন কে কিনে এনে দেবে আমার মা, ভাই, বোন নাকি বাবা।

বন্ধ করুন এমন বিকৃত চিন্তার, এমন বিকৃত ভাবনার। তাহলেই দেখবেন আপনারাও ভাবতে পারছেন মাসিক কোন লজ্জার বিষয় নয়, লুকানোর বিষয় নয়। নারীর যৌনাঙ্গ কোন গোপন অঙ্গ নয়। হাত, পা, নাক মুখের মত এটাও স্বাভাবিক একটা অঙ্গ।

আপনাদের এরকম পোস্ট-ই বরং ভাই এবং বোন কিংবা বাবা-মেয়ের মাঝে সে সেক্সুয়াল সম্পর্ক হতে পারে তাকে প্রোমট করে এই বিজ্ঞাপনটি নয়। তাই আসুন ধর্ম ব্যবসা বন্ধ করে মানবতার ধর্মে বিশ্বাসী হই।

লেখক : উন্নয়ন কর্মী।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com