1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

মার্কিন যুদ্ধজাহাজের দিকে ধেয়ে আসছে রুশ যুদ্ধজাহাজ

  • Update Time : রবিবার, ১২ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৪০ Time View

ডিবিডিনিউজ২৪ ডেস্ক :

মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা বিরাজের মধ্যেই আরব সাগরে মুখোমুখি হলো যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ। এ সময় মার্কিন যুদ্ধজাহাজটির দিকে আক্রমণাত্মকভাবে ধেয়ে যায় রুশ যুদ্ধজাহাজ।

বৃহস্পতিবার আরব সাগরের উত্তরে এই ঘটনা ঘটে। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী এই তথ্য জানিয়েছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সিএনএনের কাছে থাকা ভিডিওতে দেখা যায়, রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজটি খুবই দ্রুততার সঙ্গে ধেয়ে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস ফারাগাট নামের ডেস্ট্রয়ারটির দিকে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দফতরের দুই কর্মকর্তা বলেন, রাশিয়ার জাহাজটি মার্কিন যুদ্ধজাহাজটির ১৮০ ফুট কাছে এসে গিয়েছিল। এ সময় রুশ যুদ্ধজাহাজটি দিক পরিবর্তন করে।

যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর মধ্যে এটি সর্বশেষ লড়াইয়ের মতো অবস্থানে যাওয়ার ঘটনা। এ ঘটনাকে মার্কিন কর্মকর্তারা অনিরাপদ ও উসকানিমূলক হিসেবে বর্ণনা করছেন।

এর আগে প্রশান্ত মহাসাগরে একই ধরনের ঘটনা ঘটেছিল। তখন মার্কিন ও রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ কাছাকাছি চলে এসেছিল। পরে সংঘর্ষ এড়ানোর জন্য মার্কিন জাহাজকে কৌশল অবলম্বন করতে হয়েছিল। যার সাত মাস পর আবার এই ঘটনা ঘটলো। তবে এখনকার ঘটনা মারাত্মক আগ্রাসী ছিল।

মধ্যপ্রাচ্যে নৌ অভিযানের দায়িত্বে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের পঞ্চম নৌবহর এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘গত বৃহস্পতিবার ইউএসএস ফারাগাট যখন উত্তর আরব সাগরে রুটিন টহল দিচ্ছিল, তখন সেটির দিকে আগ্রাসীভাবে ধেয়ে আসে রাশিয়ার নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ।’

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘সংঘর্ষ এড়াতে পাঁচবার আন্তর্জাতিক সামুদ্রিক সংকেত দিয়েছিল মার্কিন যুদ্ধজাহাজ। একই সঙ্গে আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী দিক পরিবর্তনের জন্য রাশিয়ান যুদ্ধজাহাজকে অনুরোধ করে। কিন্তু রাশিয়ান জাহাজটি আগ্রাসীভাবে ধেয়ে আসায় সংঘর্ষের ঝুঁকি বেড়ে যায়।’

এদিকে এ ঘটনার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজকে দায়ী করেছে রাশিয়া। শুক্রবার এক বিবৃতিতে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, রাশিয়ান যুদ্ধজাহাজের বাম পাশ দিয়ে মার্কিন নৌবাহিনীর ডেস্ট্রয়ারটি দ্রুতগতিতে চলছিল। কিন্তু মার্কিন যুদ্ধজাহাজটি আন্তর্জাতিক নিয়ম লঙ্ঘন করে রুশ যুদ্ধজাহাজাটির দিক পরিবর্তন করতে কৌশল গ্রহণ করে। যা যুক্তরাষ্ট্রের ক্রুদের অপেশাদার আচরণ। এই অবস্থায় রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজের ক্রুরা পেশাগতভাবে দায়িত্ব পালন করেছে।’

যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ইরানের কুদস বাহিনীর প্রধান কাসেম সোলাইমানির নিহতের পর মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এমন অবস্থায় আরব সাগরে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজের মুখোমুখি হওয়ার ঘটনা আলোচনাকে আরও বাড়িয়ে দিল।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com