1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

প্রার্থী মনোনয়নে আওয়ামী লীগের নতুন কৌশল

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৪৭ Time View

ডিবিডি ডেস্ক : মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে স্থানীয় প্রভাবশালীদের বলয় ভাঙতে পৌরসভার দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে দলীয় ফরম বিতরণে নতুন কৌশল নিয়েছে আওয়ামী লীগ। তৃণমূল থেকে পাঠানো তালিকার বাইরে মনোনয়ন ফরম কেনার বিষয়ে যে বিধিনিষেধ ছিল তা শর্তসাপেক্ষে শিথিল করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট বিভাগের ‘দায়িত্বপ্রাপ্ত’ কেন্দ্রীয় নেতাদের সুপারিশ থাকলে তৃণমূল থেকে পাঠানো তালিকায় নাম না থাকলেও এখন ফরম নেওয়া যাবে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এ বিষয়ে বলেন, তৃণমূলের পাঠানো তালিকার বাইরে যদি কেউ দলীয় মনোনয়ন ফরম নিতে আগ্রহী থাকে তা হলে সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বা সাংগঠনিক সম্পাদকের সুপারিশ নিতে হবে। অথবা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা সিনিয়র নেতাদের সুপারিশ থাকতে হবে। এ ধরনের সুপারিশে কেনা মনোনয়ন ফরমের বিষয়টি দলীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় আলাদাভাবে উপস্থাপন করা হবে।

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, তৃণমূলের কোন্দল বা ব্যক্তিগত শত্রুতার জেরে যাতে কোনো ত্যাগী, যোগ্য ও পরীক্ষিত নেতা বঞ্চিত না হন সে জন্য কেন্দ্রীয়ভাবে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

দেশে মোট পৌরসভার সংখ্যা ৩২৯টি। আইন অনুযায়ী, মেয়াদ শেষের পূর্ববর্তী ৯০ দিনের মধ্যেই পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। নির্বাচন কমিশন (ইসি) সূত্রে জানা গেছে, চার ধাপে এসব পৌরসভায় নির্বাচনের আয়োজন করা হবে। গত ২২ নভেম্বর প্রথম ধাপে ২৫টি পৌরসভায় ২৮ ডিসেম্বর ভোটের তরিখ রেখে তফসিল ঘোষণা করে ইসি। এসব পৌরসভায় প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ১০ ডিসেম্বর। প্রথম ধাপে সব পৌরসভায় ভোট হবে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)।

দ্বিতীয় ধাপে ৬১ পৌরসভায় ভোট হবে ১৬ জানুয়ারি। এরমধ্যে ২৯টি পৌরসভায় ইভিএমে ও ৩২টি পৌরসভায় ব্যালট পেপারে ভোট হবে। গত ২ ডিসেম্বর ঘোষিত দ্বিতীয় দফার তফসিল অনুযায়ী, ৬১ পৌরসভায় রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমার শেষ সময় ২০ ডিসেম্বর, বাছাই ২২ ডিসেম্বর, প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৯ ডিসেম্বর। ইসি সূত্রে জানা গেছে, জানুয়ারির শেষ দিকে তৃতীয় এবং ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি চতুর্থ ধাপের ভোট হবে।

দ্বিতীয় দফার ৬১টি পৌরসভার জন্য দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশীদের ফরম বিক্রি শুরু করেছে আওয়ামী লীগ। প্রথম দিনেই ৮৭টি ফরম বিক্রি হয়েছে। পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে গত মঙ্গলবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে একটি বৈঠক হয়। এতে দলটির কেন্দ্রীয় এবং বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা অংশ নেন। বৈঠকে পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের বিষয়টি স্পষ্ট হয়। সেই সঙ্গে অনিয়ম, পদ বাণিজ্য ও মনোনয়ন ইস্যুতে স্বেচ্ছাচারিতার বিষয়টি নিয়েও আলোচনা হয়। প্রস্তাবিত তালিকায় নাম না আসায় দলীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের যে অভিযোগ আসে তা নিয়েও আলোচনা হয়।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রথম দফায় তৃণমূলের পাঠানো তালিকায় কিছু কিছু জায়গায় সমস্যা ছিল। যেমন নেত্রকোনার মদন পৌরসভায় আগে বিদ্রোহী হয়ে জিতেছিলেন এমন একজনকে একমাত্র প্রার্থী করে কেন্দ্রে নাম পাঠানো হয়েছিল। সেখানে আর কেউ ফরম কিনতে না পারায় প্রথমে তাকে মনোনয়ন দেওয়া হলেও পরে অভিযোগের ভিত্তিতে প্রার্থী পরিবর্তন করা হয়।

জানা গেছে, মোহনগঞ্জ পৌরসভার জন্য তৃণমূল থেকে দুজনের নাম কেন্দ্রে এসেছে। তারা হলেন- মোহনগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি লতিফুর রহমান রতন ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য তোফায়েল আহমেদ। সে অনুযায়ী প্রথমে দল থেকে তাদের কাছে ফরম বিক্রি করা হয়। পরে তালিকার নাম নিয়ে নানা অভিযোগ ওঠে। কেন্দ্রীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের কাছে এ নিয়ে অভিযোগও করেন স্থানীয় একাধিক নেতা। এ নিয়ে অনেক আলোচনা সমালোচনার পর বুধবার (৯ ডিসেম্বর) দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের সুপারিশে আরও তিনজনের কাছে ফরম বিক্রি করা হয়। তারা হলেন- মোহনগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান, প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল কুদ্দুস আজাদের মেয়ে তাহমিনা পারভীন বীথি ও মৎস্যজীবী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রেজুয়ান আলী খান আর্নিক।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com