1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

নির্যাতন বন্ধে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অভিযোগ বক্স বসানোর পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট

  • Update Time : বুধবার, ১০ জুলাই, ২০১৯
  • ৩৪ Time View

।।ক্যাম্পাস ডেস্ক।।

মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন বন্ধে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের জন্য দেশের প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অভিযোগ বক্স বসানোর বিষয়টি নীতিমালায় যুক্ত করতে পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বুলিং নিরোধ কমিটির অগ্রগতি প্রতিবেদন সংক্রান্ত মামলার শুনানিকালে বুধবার (১০ জুলাই) বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের বেঞ্চ এ পরামর্শ দেন। একইসঙ্গে বুলিং নিরোধ কমিটির নীতিমালার চূড়ান্ত প্রতিবেদনের তথ্য জানাতে ২২ অক্টোবর দিন ঠিক করেন আদালত।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার অনিক আর হক, সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া ও আইনুন নাহার সিদ্দিকা। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুর্টি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এ বি এম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ (বাশার)।

পরে আইনুন নাহার সিদ্দিকা সারাবাংলাকে জানান, এ মামলার আজকে তারিখ ছিল। আদালত শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের অভিযোগ জানানোর জন্য দেশের প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অভিযোগ বক্স স্থাপনের কথা বলেছেন। বুলিং নিয়ে যে নীতিমালা হচ্ছে তার মধ্যে এটিকেও অন্তর্ভুক্ত করতে বলেছেন আদালত।

আদালত আরও বলেছেন, প্রতিটি স্কুলে শিশুদের নির্যাতনের অভিযোগ শোনার জন্য একটি অভিযোগ বক্স খুলতে। শিশুরা তাদের নির্যাতনের অভিযোগগুলো মা-বাবা অথবা স্কুলের শিক্ষক, কারও কাছেই বলতে পারে না। সেক্ষেত্রে স্কুলে একটি অভিযোগ বক্স থাকলে সেখানে শিশুরা অভিযোগগুলো নির্ভয়ে তুলে ধরতে পারবে।

এ সময় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীকে উদ্দেশ্য করে আদালত বলেন, ‘এই অভিযোগ বক্সের বিষয়টি প্রচারণা করতে হবে। তাই তথ্য মন্ত্রণালয়কে এই মামলায় বিবাদী করা যায় কি না সে বিষয়টি খতিয়ে দেখুন। একইসঙ্গে বুলিং (নির্যাতন) প্রতিরোধে যে কমিটি থাকবে সে কমিটির প্রধান যদি স্কুল প্রধান হন এবং তার বিরুদ্ধেই যদি নির্যাতনের অভিযোগ আসে তাহলে কমিটি তদন্ত করবে কীভাবে? সে জন্য জেলা প্রশাসন পর্যায়ের কোনো কর্মকর্তাকে ওই কমিটিতে যুক্ত করা যায় কি না সে বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের পরামর্শ নিন।’

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রী অরিত্রীর আত্মহত্যার ঘটনায় জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত প্রতিবেদন আদালতের নজরে আনন সুপ্রিমকোর্টের চার আইনজীবী। তার পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৮ সালের ৪ ডিসেম্বর হাইকোর্ট স্বপ্রণোদিত হয়ে আদেশ দিয়েছিলেন।

এ ধরনের ঘটনা প্রতিরোধে একটি জাতীয় নীতিমালা প্রণয়নে অতিরিক্ত শিক্ষা সচিবের নেতৃত্বে একটি পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করে দিয়েছিলেন আদালত। তারই আলোকে একটি খসড়া নীতিমালা তৈরি করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com