1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

নির্মাণের ৯ মাসেই সড়কে ধস

  • Update Time : রবিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৮১ Time View

ডিবিডি ডেস্ক : ৯০ লাখ টাকা ব্যয়ে বগুড়ার ধুনট উপজেলার সোনামুয়া হাট থেকে হাসাপোটল গ্রাম পর্যন্ত পাকা সড়কটি নির্মিত হলেও মাত্র ৯ মাসেই তা ধসে গেছে। সড়কের কান্তনগর গ্রামের ভেতর অন্তত ৫০ মিটার অংশ ভেঙে খালের ভেতর পড়েছে। ফলে জনগুরুত্বপূর্ণ এই সড়কে যোগাযোগ ব্যবস্থায় বিপর্যয় ঘটেছে। এদিকে সড়ক নির্মাণের ৯ মাসেই তা ভেঙে পড়ায় স্থানীয়দের মধ্যে চরম ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) অর্থায়নে ২০১৯ সালের নভেম্বরে সড়কটি পাকা করার কাজ শেষ করা হয়েছে। এক হাজার ৭৭০ মিটার দীর্ঘ সড়কটির নির্মাণ কাজে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৯০ লাখ টাকা। উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় থেকে ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে দরপত্রের মাধ্যমে কাজ পেয়ে মেসার্স শুকরা কনক্টাকশন নামের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান সড়কটি নির্মাণ করে।

সরেজমিন দেখা গেছে, নবনির্মিত পাকা সড়কের পাশ দিয়ে চলে গেছে কান্তনগর খাল। সড়কটি পাকা করার কাজের সময় ভাঙনরোধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। খালের পাশে সুরক্ষা বাঁধ (গাইডওয়াল) ছাড়াই অপরিকল্পিতভাবে কাজ করায় সড়কটি টিকসই হয়নি। এবারের অতি বর্ষণে এই সড়কের পাশে বিভিন্ন স্থানে ভেঙে গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। কোথাও আবার পাকা সড়কের কিছু অংশ ধসে খালের পেটে চলে গেছে। এই সড়কের পাশে কয়েক দিন ধরে ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। অবিরাম বর্ষণে কান্তনগর গ্রামে সাইফুল ইসলামের বাড়ির সামনে সড়কের অন্তত ৫০ মিটার ভেঙে খালের ভেতর চলে গেছে। ফলে ভাঙন স্থানে সড়কটি সরু হয়ে গেছে। ওই সড়ক দিয়ে বর্তমানে যান চলাচল করতে পারছে না। তবে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গ্রামের কিছু মানুষ পায়ে হেঁটে চলাচল করছেন। এর পরও ওই সড়কের আরো প্রায় ১৫০ মিটার অংশ খালের পেটে ভেঙে পড়ার ঝুঁকিতে রয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, এই সড়কপথে অন্তত ১০ গ্রামের প্রায় ২০ হাজার মানুষ চলাচল করে।

সড়কটির নির্মাণ কাজ দেখভালের দায়িত্বে ছিলেন এলজিইডির ধুনট উপজেলা সার্ভেয়ার সুলভ কুমার ঘোষ। তিনি দৈনিক আমাদের সময়কে বলেন, ‘সড়কটি নির্মাণ কাজে কোনো ক্রটি ছিল না। স্থানীয়রা সড়কের পাশে খাল থেকে বালু উত্তোলনের ফলে সড়কটি টিকসই হয়নি। অতি বর্ষণের কারণে খালে ধসে পড়েছে সড়কের কিছু অংশ। তবে সড়কের ক্ষতিগ্রস্ত স্থানটি মেরামতের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

ধুনট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বলেন, ‘ধসে পড়া সড়কটি পরিদর্শন করা হয়েছে। সড়কটি দ্রুত সংস্কার করতে এলজিইডির প্রকৌশলীকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বলা বয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com