1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বন্ধে ব্যর্থ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেন ছাত্র ইউনিয়ন

  • Update Time : সোমবার, ৫ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪০৭ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক : নোয়াখালীতে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়ে সোমবার (৪ অক্টোবর) রাজধানীর ব্যস্ততম সড়ক শাহবাগ মোড় অবরোধ করেছেন শতাধিক মানুষ। এসময় দেশব্যাপী নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ বন্ধে ব্যর্থ হওয়ায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের পদত্যাগ দাবি করেন তারা। সকালে শতাধিক মানুষ পোস্টার নিয়ে শাহবাগে অবস্থান নেন। পরে বেলা ১১টার দিকে বিভিন্ন স্লোগান দিতে দিতে তারা রাস্তা অবরোধ করেন ছাত্র ইউনিয়নের নেতাকর্মীরা।

এ সময় তারা সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন এলাকায় সংঘটিত ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের প্রতিবাদ এবং জড়িতদের বিচার দাবি করে স্লোগান দিতে থাকেন। বিভিন্ন রাজনৈতিক ও নাগরিক সংগঠনের নেতারা সংহতি জানিয়ে বিক্ষাভে দেন।

বিক্ষোভের কারণে শাহবাগ মোড়ে গাড়ি চলাচল প্রায় বন্ধ হয়ে যায়। বিক্ষোভকারীরা ‘ধর্ষকদের আস্তানা ভেঙে দাও, গুঁড়িয়ে দাও’, ‘মানুষ তুমি চুপ কেন?’, ”আমার সোনার বাংলায়, ধর্ষকদের ঠাঁই নাই’ বলে স্লোগান দিতে থাকেন। পাশাপাশি চলতে থাকে ধর্ষণবিরোধী পারফরমেন্স আর্ট, কবিতা আবৃত্তি ও মূকাভিনয়।

বিকেল চারটার দিকে শাহবাগ থেকে লাঠি মিছিল বের করেন বিক্ষোভকারীরা। কাওরান বাজার প্রদক্ষিণ করে এসে ফের শাহবাগে মিলিত হয়। সেখানেই সংহতি সমাবেশ করছেন তারা। সংহতি সমাবেশে বিভিন্ন প্রগতিশীল ছাত্র-যুব-শ্রমিক সংগঠনের নেতা-কর্মীদের দেখা গেছে।

ছাত্র ইউনিয়েনর সাধারণ সম্পাদক অনিক রায় বলেন, ধর্ষণের দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা হিসেবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হবে। এ দাবিতে মঙ্গলবার বেলা ১১টায় কালো পতাকা মিছিল নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে পদযাত্রা কর্মসূচী পালন করা হবে।

ডাকসুর সাবেক ভিপি ও ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ন আহ্বায়ক নুরুল হক নুর বলেন, দেশজুড়ে আজ নৈরাজ্য চলছে। কোনো মা-বোন নিরাপদ নয়। তিনি বলেন, ধর্ষণ বন্ধ করতে হলে ধর্ষকদের আশ্রয়দাতাদের নির্মূল করতে হবে।

ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী বলেন, ‘সারাদেশে একের পর এক ধর্ষণ ঘটেই চলেছে৷ সম্প্রতিকালে সিলেটের এমসি কলেজ এবং নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে ভয়ঙ্কর নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে৷ দেশে বিচারহীনতার সংস্কৃতির জন্যই এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটছে।’

বেগমগঞ্জ উপজেলার একলাশপুরে এক গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার ঘটনায় প্রধান আসামিসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঢাকা থেকে রোববার দিবাগত রাতে মামলার প্রধান আসামি বাদলকে এবং নারায়ণগঞ্জ থেকে আরেক আসামি দেলোয়ারকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। বাদলকে ঢাকার কামরাঙ্গীরচর এলাকা থেকে আর দেলোয়ারকে অস্ত্রসহ নারায়ণগঞ্জের চিটাগং রোডের একটি বাস থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান র‍্যাব-১১-এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল খন্দকার সাইফুল আলম।

গৃহবধূর শ্লীলতাহানি ও নির্যাতনের ঘটনায় গতকাল রাতে ৯ জনকে আসামি করে বেগমগঞ্জ থানায় মামলা করা হয়। এর আগে বিকেলে আসামি আবদুর রহিমকে আটক করা হয়েছিল। এরপর মামলা করা হলে গতকাল রাতে আসামি রহমত উল্লাহকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরই মধ্যে নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে এসেছে পুলিশ।

একলাশপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের একটি বাসায় ২০ থেকে ২৫ দিন আগে এ ঘটনা ঘটলেও রোববার গৃহবধূকে নির্যাতনের ওই ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়। ভিডিওচিত্রে ভুক্তভোগী গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে তার মুখমণ্ডলে উপর্যুপরি লাথি ও বেধড়ক মারধর করতে দেখা যায়। এ সময় গৃহবধূ হামলাকারীদের বহুবার পায়ে ধরে এবং বাবা বাবা বলে ডাকলেও নির্যাতন বন্ধ রাখা হয়নি। বরং তাঁর শরীরের স্পর্শকাতর স্থানসহ সব স্থানে লাঠি দিয়ে আঘাত করে গুরুতর আহত করে। তারা এ সময় তাঁকে ধর্ষণের চেষ্টা করে বলেও অভিযোগ পাওয়া যায়। এলাকার বাদল, কালাম, দেলোয়ারসহ আরো কয়েকজন ব্যক্তি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় দেড় থেকে দুই মাস আগে এলাকার একদল বখাটে ওই গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দেয় এবং শারীরিক সম্পর্কের চেষ্টা করে। এভাবে তারা আরো কয়েকবার তাকে কুপ্রস্তাব দেয় বলে গৃহবধূ জানান। পরে বখাটেরা শারীরিক সম্পর্ক করার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে কোনো একসময়ে তাকে বেদম মারধর করে ভিডিও ধারণ করে। এভাবে ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া হবে বলেও তারা গৃহবধূকে বিভিন্নভাবে হুমকি-ধমকি দিয়ে আবারও শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করে। ব্যর্থ হয়ে অবশেষে রোববার তারা ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। ফলে তা ভাইরাল হয়ে পড়ে।

জানা যায়, ওই গৃহবধূর সঙ্গে তার স্বামীর দীর্ঘদিন বনিবনা ছিল না। তবে সম্প্রতি স্বামী তার কাছে ফিরে আসেন। তাদের দুটি সন্তান রয়েছে। ঘটনার সময় ওই নারীর স্বামীকে ধাক্কা দিয়ে ঘর থেকে বের করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন গৃহবধূ।

ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) আলমগীর হোসেনের নজরে এলে তিনি এ বিষয়ে ত্বরিত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নির্দেশ দেন। এসপি আলমগীর হোসেন বলেন, ‘পুলিশ নির্যাতিতাকে তার বাবার বাড়ি থেকে সন্ধ্যায় উদ্ধার করেছে। তিনি পুলিশকে জানান, ২০ থেকে ২৫ দিন আগে এ ভিডিওচিত্র ধারণ করা হয়। তবে সঠিক তারিখ তিনি বলতে পারেননি।’

তবে ভিডিওতে দৃশ্যমান বখাটেদের গ্রেপ্তারে পুলিশের পাঁচটি ইউনিট অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানান এসপি আলমগীর।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com