1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

কলকাতা ও ঢাকার কবিদের যৌথ কাব্য ‘লতিফা কলস’ গ্রন্থ’র মোড়ক উন্মোচন

  • Update Time : শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৪১ Time View

বোরহান মেহেদী : শুক্রবার, ঢাকার গ্রীণরোড নওয়াজেশ আলী মিলনায়তনে এক জাকজমক অনাড়ম্বর আবেগঘন পরিবেশে কলস ২০১৯ গ্রন্থের শুভ মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জনাব মো. নাসির উদ্দিন আহমেদ, সাবেক সচিব সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং যুগ্ম আহ্বায়ক, সম্প্রীতি বাংলাদেশ জনাব ফারুক মঈনউদ্দীন

কথাসাহিত্যিক ও ভ্রমণ লেখক [বাংলা একাডেমী পুরস্কার প্রাপ্ত] ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড। ড. ফোরকান উদ্দিন আহমেদ সাবেক উপ-মহাপরিচালক বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী।

প্রথমেই একটি কবিতা কয়টি চরণ দিয়ে স্বাগত জানান অতিথিদ্বয়কে। “ঐ তো উড়ে যায় আলোমেঘ ডানা, আর ফিরে আসে না ! আসে না ! এক টুকরো বরফ – সাহস চোখ মেলে আকাশের নীলে, তিলে তিলে জল ধুয়ে দেয় সুখ অনাবিলে। পাখি উড়ে উড়ে দূরে যায় গেয়ে যায় গান কাঁদে আঁখি একা জলে কেঁপে ওঠে প্রাণ।”

কলকাতার থেকে [ মিলি বৌদি সহ ] যোগদানকৃত কবি ড. অনুপ কুমার দত্ত এর সভাপতিত্বে এবং জনাব একে,এম, মিজানুর রহমান ছিলেন অনুষ্ঠানের প্রাণ এবং আকর্ষণ। সঞ্চালনায় ছিলেন রাফিয়া আক্তার পলি।

উদ্বোধনী সঙ্গীত পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি শুরু হয়। লাবনী সিং এর আগুনের পরশমণি ছোঁয়াও, পরে দেশের গানে অনন্য সুচণার সুরের মূর্ছনায় গাওয়া হয়, নূপুর-ও আমার বাংলা মা তোর রূপের সুধায়, দেশের গান, লাবনী সিং আমার চিত্তে বাংলাদেশ।

এরপর উত্তরীয় অলংকরণ এর মাধ্যমে অনুষ্ঠান বর্ণীল হয়ে ওঠে সূচনা বক্তব্যে একেএম মিজানুর রহমান বাংলা লতিফার যাত্রা ও গতি প্রকৃতির উপর আলোকপাত করেন।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন শ্রদ্ধেয় ড. সাঈফ ফাতেউর রহমান। তিনি একেএম মিজানুর রহমান এবং রেজিনা আক্তার বেগমের সন্তান সাদিক মুহাম্মদ তাকবীর দখিন এর স্মৃতির প্রতি লতিফা কলস ২০১৯ এর উৎসর্গ করার বিষয়টি উল্লেখ করে সবাইকে স্বাগত জানান। তিনি লতিফা পরিচিতি উপস্থাপন করেন এবং দখিন এর প্রতি উৎসর্গকৃত ছ’টি লতিফা আবৃত্তি করেন। তিনি তাঁর এবং কবি শিউলি আখন্দ এর প্রকাশিত একক লতিফা গ্রন্থের উপর আলোকপাত করেন।

এ বছর বাংলা একাডেমী পুরস্কার প্রাপ্ত জনাব ফারুক মঈনউদ্দীন, কথাসাহিত্যিক ও ভ্রমণ লেখক এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড তাঁর বক্তব্যে লতিফা কলস এর অগ্রগতি ও সাফল্য কামনা করেন। তিনি ছন্দ ও মাত্রাভিত্তিক লতিফা চর্চার উপর গুরুত্বারোপ করেন। পরে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আগত লতিফা কবিগন অনেকেই তাঁদের স্বরচিত কাব্যগ্রন্থ অতিথিবৃন্দকে উপহার দেন। অনেকে লতিফা আবৃত্তি করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনাব জনাব মো. নাসির উদ্দিন আহমেদ, সাবেক সচিব, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং যুগ্ম আহ্বায়ক, সম্প্রীতি বাংলাদেশ বলেন, বিশ্বমানবতার বিকাশ ও লালনে অসাম্প্রদায়িক সংস্কৃতির চর্চা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। সুন্দর ও সুষ্ঠু সাংস্কৃতিক চর্চা মানবিক উন্নয়নের মূল উৎস বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি একটি সম্প্রীতির বাংলাদেশ বিনির্মাণের আহ্বান জানান।

দখিনের মা রেজিনা আক্তার বেগম এবং ড. ফোরকান উদ্দিন আহম্মদ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং লতিফা যাত্রার সার্বিক মঙ্গল ও সাফল্য কামনা করেন। রেজিনা আক্তার বেগম এবং আফসানা সাদিক অতুলি লতিফা কলস ২০১৯ দখিনের স্মৃতির প্রতি উৎসর্গ করায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সভাপতির বক্তব্যে ড. অনুপ কুমার দত্ত দাদাজান দখিনের স্মৃতির প্রতি মমতা ভেজানো কণ্ঠে ভালোবাসা জানান এবং তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন। তিনি অতিথিবৃন্দ সহ অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবাইকে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। লতিফা বিশ্বের বাংলা ভাষাভাষী মানুষের এক মেলবন্ধন হয়ে উঠেছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

অনুষ্ঠানটি আয়োজনের জন্য যারা নিঃশর্ত সহযোগিতা প্রদান করেছেন সবাইকে অনিঃশেষ কৃতজ্ঞতা এবং ধন্যবাদ জানান। সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছিলেন কবি বন্ধু মুরাদ, কবি রফিক রতন, কবি মানিক, কবি আবু জাফর সিকদার, কবি মনির এবং লাবনী সিং, সঞ্জয় সহ সবাইকে আবারো প্রাণঢালা ভালোবাসা আর বসন্তের শুভেচ্ছায় ভূষিত করেন।

পরিশেষে একটি অসাম্প্রদায়িক এবং সম্প্রীতির বাংলাদেশ বিনির্মাণের প্রত্যাশায় উন্মোচন অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com