1. azadzashim@gmail.com : বিডিবিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম :
  2. litonsaikat@gmail.com : neelsaikat :

অবৈধপন্থায় ভোটার হওয়ায় ৬শ রোহিঙ্গার বিরুদ্ধে মামলা

  • Update Time : বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ৩৪ Time View

ডিবিডিনিউজ ডেস্ক :

জালিয়াতি ও অবৈধপন্থায় বাংলাদেশে ভোটার হয়েছেন ছয় শতাধিক রোহিঙ্গা। এরই মধ্যে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে ভোটার হওয়ার বিষয়টি প্রকাশ্যে চলে এসেছে। এ নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

এরই মধ্যে ৬০০ রোহিঙ্গার বিরুদ্ধে মামলা করেছে কক্সবাজার নির্বাচন অফিস। গত শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শিমুল শর্মা বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় ৬০০ রোহিঙ্গার বিরুদ্ধে মামলা করেন।

এ মামলায় নির্বাচন কমিশনের কাছে তথ্য গোপন করে নানা কৌশলে ডিজিটাল ও ইলেকট্রনিকস জালিয়াতি ও প্রতারণার আশ্রয় নেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। এ ঘটনায় তিন রোহিঙ্গাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পাঁচ জনের নাম উল্লেখ করে এবং বাকিদের অজ্ঞাতনামা হিসেবে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, চট্টগ্রামে নির্বাচন অফিসে গিয়ে তথ্য গোপন করে অবৈধভাবে ভোটার তালিকায় নাম ওঠানোর অভিযোগে সম্প্রতি কক্সবাজার পৌরসভার পশ্চিম নতুন বাহারছড়ার বাসিন্দা (পুরনো রোহিঙ্গা) ইউসুফ আলীর ছেলে নুরুল ইসলাম নুরু (৪২), মৃত শহর মুল্লুকের ছেলে ইয়াছিন (৩৭), টেকনাফ নয়াপাড়া মুছনি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এইচ ব্লকের আবুল হাশেমের ছেলে আব্দুল্লাহকে (৫৩) কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের সহায়তায় আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা স্বীকার করেন, কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামাবাদ খোদাইবাড়ি এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা মৃত ওলা মিয়ার ছেলে শামসুর রহমান (৫০) ও রোহিঙ্গা ওবায়দুল্লাকে সঙ্গে নিয়ে চট্টগ্রামে গিয়ে ১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে তারা ভোটার হয়েছেন।

মামলার বাদী শিমুল শর্মা জানান, ‘অভিযুক্তরা চট্টগ্রাম শহরের অজ্ঞাতনামা লোকজনের মাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে টাকার বিনিময়ে রোহিঙ্গাদের অবৈধ পন্থায় নানা কৌশলে ডিজিটাল বা ইলেকট্রনিক জালিয়াতি ও প্রতারণার মাধ্যমে ভোটার নিবন্ধন করে আসছে। ইতোমধ্যে নুরুল ইসলাম প্রকাশ নুরু ও মো. ইয়াছিন টাকার বিনিময়ে ভোটার তালিকাভুক্ত হয়েছেন। এটা স্পষ্ট হওয়ার পর এই দুই রোহিঙ্গাসহ আব্দুল্লাহ নামের আরেক রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়। আটককৃতরা জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে, গত ১২ মে নুরু ও মো. ইয়াছিন শহরের নতুন বাহারছড়া জামে মসজিদের সামনে আব্দুল্লাহ, ওবায়দুল্লাহ ও শামসুর রহমানকে ভোটার নিবন্ধনের জন্য ১৫ হাজার টাকা দেয়। পরে তাদের ছবি তুলে ভোটার নিবন্ধনের জন্য চট্টগ্রাম শহরে নিয়ে একটি কক্ষে রাখে। সেখানে আগে থেকেই আরও অনেক রোহিঙ্গা অবস্থান করছিল। একই পন্থায় অন্তত ৫০০ থেকে ৬০০ রোহিঙ্গা ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করেছেন।’

Please Share This Post in Your Social Media

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More News Of This Category
© 2018 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | dbdnews24.com
Site Customized By NewsTech.Com